https://tipswali.com/wp-content/uploads/2021/04/Coffee-Machine.jpg

বিকালের আড্ডায় কিংবা শরীর চাঙ্গা করতে এক কাপ কফির জুড়ি নেই। আমি নিজেই একজন কফি আসক্ত বলতে পারেন। তবে শরীরে কথা চিন্তা করে এর মাত্রা কিছুটা কমিয়ে নিয়ে এসেছি। প্রিয় পাঠক, কফি বানানোর কাজকে সহজ করতে বাজারে আপনার জন্য রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ও দামের কফি মেশিন বা কফি মেকার।

সম্মানিত পাঠক, আজকের লেখায় বিস্তারিত আলোচনা করবো কফি মেশিন কি, বাংলাদেশে কফি মেকার বা মেশিনের দাম (Price in Bangladesh), ভালো মানের ও ব্র্যান্ডের কফি মেশিন কোনটি, কেনার গাইডলাইন ও টিপস, কিভাবে কফি মেশিনের সাহায্যে কফি বানাবেন। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

কফি মেশিন কি?

কফি মেশিন হচ্ছে এক ধরনের রান্না সরঞ্জাম যা কিনা কফি বানানোর কাজে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। কফি মেশিন কফি মেকার নামেও পরিচিত।

কিভাবে কাজ করে?

প্রথমে কফি মেশিনে পানি ও  ম্যানুয়ালি পানি ও কফি বিনের মধ্যে দিয়ে দিতে হয়। সাধারণত উন্নত মানের কফি মেশিনে প্রথমে পানির লাইন হতে মেশিনের মধ্যে পানি প্রবাহিত হয়। সফটনার ও কার্বন ফিল্টার এর সাহায্যে অপরিষ্কার পানি হতে দূষিত পদার্থ ও ক্ষার দূর করে পানি বিশুদ্ধ করা হয়।

এই পানি নির্দিষ্ট পাত্রে এসে জমা হতে থাকে এবং একটি নির্দিষ্ট লেভেলে পৌঁছে সমান থাকে। যখন কফি মেশিন চালু করা হয় তখন বিদ্যুৎ প্রবাহ শুরু হয় এবং একটি টিউবে পানি উত্তপ্ত হওয়া শুরু করে। এবং তাপমাত্রা চেক করার জন্য একটি সেন্সর থাকে যা ৯১ ডিগ্রি থেকে ৯৬ ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা নিশ্চিত করে।

উত্তপ্ত টিউব হতে বুদবুদ বা বাষ্প ওঠা শুরু করে। এই বুদবুদ বা বাষ্প অন্য একটি পাইপ হতে কফি বিনের মধ্যে গিয়ে পড়ে। এ পর্যায়ে উতপ্ত পানি কফি বিনের মধ্যে থাকা কফি অয়লে বের করে আনে এবং নির্দিষ্ট সুইচ বা বোতাম চাপলে কাপে পড়তে শুরু করে।

বিশ্বের বিখ্যাত কফি মেশিন ব্যান্ড

পৃথিবীর সব দেশেই কফি জনপ্রিয়তা লাভ করছে। এই সুযোগে দেশে বিদেশে নানা ম্যানুফ্যাকচারার নানা ডিজাইনের কফি বানানোর মেশিন নিয়ে হাজির হয়েছে। বিশ্বের সেরা কফি মেশিন ব্যান্ডগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি কফি মেশিন ব্র্যান্ড হচ্ছে  কার্পস, লা প্যাভোনি, আসকাসো, কেমেক্স, হারিও, কালিটা, কিচেনএইড, ফিলিপস, ফেলো।

সেরা ৫ টি কফি মেকার বা মেশিন ও এর দাম

বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন দেশি ও বিদেশি ব্র্যান্ডের কফি মেকার কিনতে পাওয়া যায়। দামে ও গুনের এদের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। আমাদের দেশের বাজারে লাক্সারি পন্যের তুলনায় বাজেট-ফ্রেন্ডলি পন্যের চাহিদা বেশি থাকায় এই ধরনের পন্যই বেশি পাওয়া যায়। প্রিয় পাঠক, আর কথা না বাড়িয়ে চলুন বাংলাদেশের বাজারে থাকা বাজেট ফেন্ডলি ও উন্নত মানের ৫ টি কফি মেশিন ও এদের দাম জেনে নেওয়া যাকঃ The 5 best coffee machine and price in Bangladesh

1. Philips HD7431 Coffee Machine

আপনি যদি বাজেটের মধ্যে একটি ভালো মানের কফি মেশিন কিনতে চান তাহলে আমি সর্বপ্রথম যে কফি মেকারটির কথা বলবো সেটি হচ্ছে ফিলিপস এইচডি-৭৪৩১। বাংলাদেশে ফিলিপস HD-7431 কফি মেকারটির দাম ধরা হয়েছে ৳৪০০০ মাত্র। এতে থাকাছে ওয়াটার লেভেল ইনডিকেটর, এলইডি পাওয়ার সুইচ, ০.৬ লিটার ধারন ক্ষমতা। বাজেট কম হলেও দেখতে বেশ প্রমিয়াম মনে হবে। এক বারে ২ মগ থেকে ৭ কাপ পর্যন্ত কফি তৈরি করা যায় অনায়াসে। এক জগ কফি তৈরি হতে সময় লাগে মাত্র ১০ মিনিট। কিভাবে এটি ব্যবহার করবেন কিংবা পরিষ্কার করতে হবে সেজন্য রয়েছে একটি সিম্পল ইউজার ম্যানুয়াল।

2. Walton Coffee Maker WDCM-G15L

আপনার বাজেট যদি আরও কম হয়ে থাকে তবে আপনি ওয়াল্টন WDCM-G15L কফি মেকারটি দেখতে পারেন। দেশীয় পন্য হিসেবে ওয়াল্টন কিন্তু দেশের বাজারে তাদের পন্য ও পন্যের কোয়ালিটি দিয়ে বেশ সুনাম অর্জন করেছে।  Walton WDCM-G15L Coffee Machine এর ধারন ক্ষমতা ১.৫ লিটার বা ১২ কাপ। থাকছে ড্রিপ ড্রপ ফিচার অর্থাৎ আপনি যখন কপি পট সরিয়ে নিয়ে যাবেন এটি অটোমেটিক বন্ধ হয়ে যাবে। ব্যবহার ও পরিষ্কার করতেও কোন ঝালেমা পোহাতে হয় না। বাংলাদেশে Walton Coffee Maker এর দাম ধর হয়েছে ৳২২০০ মাত্র।

3. Nescafe Coffee Vending Machine

Nescafe এর সাথে আমরা কম বেশি সবাইই বেশ পরিচিত। কফি শপে গেলেই এই কফি মেশিনগুলো নজরে আসে। আপনি যদি কমার্শিয়াল কাজে অর্থাৎ শপে কফি বিক্রি করতে চান তাহলে Nescafe Coffee Vending Machine হতে পারে আপানার জন্য একটি সঠিক সল্যুশন। এই মেশিনের সাহায্যে আপনি একাধিক পানীয় তৈরি করতে পারবেন। বাংলাদেশের নেসক্যাফে কফি মেশিনের দাম ৳৩৩৫০০ মাত্র। তাহলে বুজেই পারছেন আপনার বাসার জন্য আপনি যদি একটি কফি মেকার খুঁজে থাকেন তবে এটি আপনার জন্য না। তবে আপনার যদি অনেক টাকা হয়ে থাকে তাহলে তো, দে নাড়া চিনি ছাড়া, দেখে ঝোপ মার কোপ

4. Miyako CM 325 Coffe Maker

জাপানী ব্র্যান্ড মিয়াকো বাংলাদেশের বাজারে কিচেন ও ইলেক্ট্রনিক্স প্রোডাক্ট দিয়ে ইতিমধ্যে সবার নজর কেড়েছে। বাসার জন্য কফি মেশিন কিনতে চাইলে Miyako CM 325 Coffe Maker টি হতে পারে একটি ভালো সমাধান। বাংলাদেশের বাজারে মিয়াকো কফি মেকারের দাম ২৫০০ টাকা মাত্র। এর ধারন ক্ষমতা ১।৫ লিটার অর্থাৎ একবারে আপনি প্রায় ৬ থেকে ৮ কাপ কফি বানাতে পারবেন খুব অনায়াসে। এছাড়াও থাকছে অটো সুইচ অফ ফিচার।

5. Walton WDCM-S19L Coffee Machine

দুই হাজার টাকার নিচে যদি একটি কফি মেকার খুঁজে থাকেন তবে ওয়াল্টন কফি মেকারটি দেখতে পারেন। এর ধারন ক্ষমতা ১.৯ লিটার অর্থাৎ একবারে প্রায় ১৪ থেকে ১৫ কাপ কফি বানাতে পারবেন। সাথে থাকছে এক বছরের ওয়ারেন্টই। বাংলাদেশের বাজারে এই কফি মেশিনটির দাম ধরা হয়েছে ১৮৫০ টাকা মাত্র।

কফি মেকার বা মেশিন ব্যবহারের নিয়ম

কফি মেকার দিয়ে কফি বানানো খুবই সহজ কাজ। চলুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে কফি মেকারের সাহায্যে কফি বানাবেনঃ

প্রথমেই আপনার পরিমানমতো ঠাণ্ডা (নরমাল) পানি রিজার্ভওয়ার বা পানি দেওয়ার নির্দিষ্ট পাত্রে ঢালুন। অবশ্যই ফিল্টার থেকে বিশুদ্ধ পানি নেওয়ার চেষ্টা করুন। সরাসরি কাঁচা পানি ব্যাবহার থেকে বিরত থাকুন।

নির্দিষ্ট স্থানে জার বা ক্যারাফটি রাখুন এবং আপনার জারে পানি মাপার জন্য দাগ দেওয়া থাকবে। আপনি চাইলে এর সাহায্যে পানির পরিমান মেপে নিতে পারেন।

কফি বিনে পানির হিসেবে পরিমান মতো কফি দিন। নরমাল কফির জন্য প্রতি ৫-৬ আউন্স এর জন্য এক টেবিল চামচ ও স্ট্রং কফির জন্য প্রতি ৫-৬ আউন্স এ দুই টেবিল চামচ কফি দিন।

এ পর্যায়ে কফি মেকারের সুইচ অন করে দিন। বৈদ্যুতিক লাইন দেওয়া আছে কিনা সেটিও নিশ্চিত হয়ে নিন। এবং কিছু সময় অপেক্ষা করুন।

আপনার কফি মেশিন অটোম্যাটিক ইনডিকেটর থাকেল আপনাকে জানিয়ে দিবে যে আপনার কফি তৈরি হয়ে গেছে। এবার কাপে বা মগে ঢেলে পরিবেশন করুন। তবে বাণিজ্যিক মেশিনগুলোতে আপনি সরাসরি কাপে কফি পেয়ে যাবেন।

মন্তব্য

প্রিয় ভিজিটর, আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। কোন প্রশ্ন কিংবা পরামর্শ থাকেলে শেয়ার করতে পারেন আমাদের সাথে। ভালো থাকেবন সুস্থ থাকবেন, নিরাপদে থাকবেন।

Spread the love