How to increase breast size

ব্রেস্ট বা বুকের স্তন মেয়েদেরকে আকর্ষণীয় করে তোলে। মেয়েদের স্ট্যান্ডার্ড ব্রেস্ট সাইজ ৩৪ থেকে ৩৬। তবে অনেক মেয়েদের স্তনের সাইজ আকারে ছোট হয়ে থাকে। মেয়েদের স্তন বা বুকের দুধ বা ব্রেস্ট বড় করার জন্য বর্তমানে বিভিন্ন থেরাপি ও সার্জারি বের হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে এই সকল সার্জারি না করে প্রাকৃতিক ভাবে ব্রেস্ট বা স্তনের সাইজ বড় করা উত্তম। এতে কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে না।

সম্মানিত ভিজিটর, আজকের লেখাজুরে বিভিন্ন বিখ্যাত হেলথ ম্যাগাজিনের মতে মেয়েদের বুকের দুধ বা স্তন বড় করার প্রাকৃতিক ও ঘরোয়া উপায়, খাবার, ব্যায়াম, কি খেলে দুধ বড় হয়, কয়েকটি কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। ব্রেস্ট সাইজ বড় করার এই ঘরোয়া উপায়গুলো অনুসরন করলে আপনি খুব অল্প দিনের মধ্যে আপনার বুকের স্তনের সাইজ ৩৪ থেকে ৩৬ বানাতে পারবেন।

১. ব্রেস্ট বা বুকের স্তন বা দুধ বড় করার ব্যায়াম

প্রিয় ভিজিটর, আপনাদের বুকের স্তনের সাইজ বড় বিখ্যাত হেলথ ম্যাগাজিন হেলথ লাইন কিছু ব্যায়াম করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন। বাসায় নিয়মিত এই ব্যায়ামগুলো আপনার বুকের দুধের সাইজ বড় করার জন্য বেশ কার্যকর। চলুন এ পর্যায়ে ঘরোয়া উপায় বুকের দুধ বড় করার ব্যায়ামগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

ওয়াল প্রেস

ঘরোয়া ভাবে মেয়েদের বুকের দুধ বড় করার জন্য এই ব্যায়ামটি বেশ কার্যকরী। বুকের স্তন বড় করার জন্য এই ব্যায়মটি যেভাবে করবেন- প্রথমেই দেওয়াল বা এই টাইপের কিছুর সামনে দাঁড়ান। নাক বরাবর দুই হাতের তালু দেয়ালে রাখুন। এবার হাতের সমান দূরত্বে দাঁড়ান। পা থেকে মাথা সোজা রেখে হাতের তালুতে ভর করে সামনে পিছন এভাবে করতে থাকুন। ১০ থেকে ১৫ বার এভাবে করুন।

আরম সার্কেল

দেয়াল প্রেস হয়ে গেলে এই ব্যায়ামটি করুন। প্রথমে পায়ের গোড়ালির মধ্যে ৪ আঙ্গুল ফাকা রেখে সোজা হয়ে দাঁড়ান। এবার হাত দুটি দুই দিকে সোজাসুজি ছড়িয়ে দিয়ে রিং ঘোরানর মতো করে করতে থাকুন। এক দুই মিনিট করে একটু ব্রেক নিয়ে আবার করুন। আপনি চাইলে হাতে সামান্য ওজন কিছু নিয়েও এটি করতে পারেন।

আরম প্রেস

বুকের স্তন বা ব্রেস্ট বড় করার জন্য এই ব্যায়ামটিও বেশ কার্যকর। প্রথমেই সোজা হয়ে দাঁড়ান এবং আপনার দুই হাত দুই দিকে ছড়িয়ে দিন। এবার একবার সামনের দিকে হাত এনে দুই হাতের তালু এক করুন আবার একবারে হাত সোজা করে পিছনেরে দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। এভাবে ১-২ মিনিট করুন।

প্রেয়ার পোজ

মেয়েদের বুকের দুধের সাইজ বড় করতে এই ব্যায়মটি নিয়মিত করুন। দুই হাতের তালু একসাথে রেখে হাত দুইটি সামনের দিক থেকে বুকের কাছে নিয়ে আসুন আবার সামনের দিকে নিয়ে যান।

মডিফাইড পুশআপ

সাধারণত পুশআপ দেওয়ার সময় আমরা মাথা পা সোজা সুজি রাখি ও হাত ও পায়ের আঙ্গুলে ভর রাখি। তবে এই ব্যায়মের জন্য পা সাধারন পুসআপের মতো রেখে হাঁটুতে ভর রেখে পুসআপ দিন। এভাবে ১২ টি করে তিন সেট দিন।

২. বুকের স্তন বা দুধ বড় করার জন্য খাবার গ্রহন

খাদ্য মানুষের শরীরের সরাসরি প্রভাব ফেলে। গবেষণায় দেখা যায় মহিলাদের শরীরে কম এস্ট্রজেন থাকার কারনে ব্রেস্টের আকার ছোট হতে পারে। আপনি ফাইটোয়েস্ট্রোজেন বা উদ্ভিদ এস্ট্রোজেন সমৃদ্ধ খাবার গ্রহন করতে পারেন। বুকের দুধ বা স্তনের সাইজ বড় করতে যে সকল খাবার খাবেন সেগুলো হচ্ছে- কাজু বাদাম, তিলের বীজ, বাদামি চাল, গাজর, বরই, মৌরি, শসা, গ্রিন টি, ওটমিল। পাশাপাশি ভিটামিন সি জাতীয় খাবার কোলাজেন পুনুরুদ্ধারে সাহায্য করে। ক্লোজেন একটি প্রোটিন যা স্তনের আকৃতি দেয়।

৩. স্তন বা বুকের দুধ বড় করতে সঠিক সাইজের ব্রা পড়ুন

ব্রেস্ট বা স্তন ঝুলে যাওয়া একটি কমন বিষয়। বয়েসের সাথে সাথে আমাদের শরীরে চামড়া ঢিলা হয়ে আসে। আর এর প্রভাব পড়ে মেয়েদের বুকের দুধেও। স্তনের আকার সঠিক ভাবে বৃদ্ধির জন্য বিশেষ করে বয়সন্ধি কালে সঠিক আকারের ব্রা পরিধান করা উচিত। পাশাপাশি ব্রা আপনাকে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে।

৪. স্তন বা বুকের দুধ বড় করার জন্য ব্রেস্ট ম্যাসাজ

বুকের দুধের সাইজ বড় করার অন্যতম একটি কার্যকরী ও সহজ উপায় হচ্ছে স্তন মাসাজ করা। গোসল করার সময় হাত দিয়ে স্তনের চার পাশে প্রতিদিন ১০ থেকে ১৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন। এই জন্য সামান্য গরম সরিষার তেল বা খাটি মধু ব্যবহার করা যেতে পারে।

৫. নিয়মিত ঘুম ও স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন

উপরে উল্লেখিত পদ্ধতিগুলো অনুসরন করার পাশাপাশি নিয়মিত ঘুম ও স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করার চেষ্টা করুন। এছাড়াও দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকার চেষ্টা করুন। রাতে ঘুমের সময় খোলামেলা পোশাক পড়ুন।

সর্বশেষ

সম্মানিত ভিজিটর বুকের দুধ বা স্তন মেয়েদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। মেয়েদের শারীরিক সৌন্দর্য বিকাশের এর তুলনা হয় না। আপনার বুকের স্তনের আকার ছোট হলে এ নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কোন দরকার নেই। বুকের দুধের সাইজ বড় করতে উপরে উল্লেখিত পুদ্ধতিগুলো অনুসরন করুন ও স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করার চেষ্টা করুন। ধর্মীয় বিধিনিষেধ মেনে চলুন।