https://tipswali.com/wp-content/uploads/2021/07/mushroom-recipe.jpg

ওয়েস্টার, চিলি, গার্লিক, চিকেন মাশরুম রেসিপি ও রান্নার নিয়ম। এছাড়াও থাকছে সুস্বাদু মাশরুম ফ্রাই রেসিপি।

প্রিয় ভিজিটর, আজকের লেখাজুড়ে একটু অন্য আলাপ হবে। আমি হেলেন আছি আপনাদের সাথে। আমার আম্মুর হাতে প্রথম মাশরুম রান্না খেয়েছি। এর পড়ে আমাদের বাসার রেগুলার খাবার তালিকায় এর অবস্থান। বিশেষ করে আম্মুর ডায়াবেটিস থাকার কারনে আমাদের বাসায় মাশরুম রান্না বেশি হয়। তথা মাশরুম দিয়ে তৈরি কয়েকটি রেসিপি টেস্ট করা হয়ে গেছে, ইউটিউব দেখে আর আম্মুর সাথে থেকে থেকে এই গত লকডাউনে অনেকগুলো রপ্ত করে ফেলেছি। আর আজকের লেখাজুড়ে আমার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে যাচ্ছি।

আজকের লেখায় বেশ কয়েকটি মজাদার, সুস্বাদু, পুষ্টিকর মাশরুম রেসিপি শেয়ার করতে যাচ্ছি। এখানে প্রত্যেকটি রেসিপির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরন ও রান্নার নিয়ম সম্পর্কে ধাপে ধাপে আলোচনা করবো। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

১. মাশরুম ফ্রাই রেসিপি

অতিরিক্ত ভাজাপোড়া খাওয়া আমাদের পরিবারে একদমি নিষেধ। তবে আমার পছন্দ বলে কথা। মাশরুম ফ্রাই ভাজা খাবার হলেও এটি বেশ সুস্বাদু ও পুষ্টিকর। আপনিও চাইলে এই রেসিপিটি বাসায় তৈরি করে ফেলতে পারেন। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক মাশরুম ফ্রাই রেসিপি সম্পর্কে-

প্রয়োজনীয় উপকরণ

০.৫ বা আধা কাপ বেসন, ১ টি ডিম, ১ চা চামচ শুকনো মরিচের গুঁড়া, ১/৪ (১ চা চামচের ৪ ভাগের এক ভাগ) আদা বাটা, লবন পরিমাণ মতো, কালোজিরা পরিমাণ মতো (না ও দিতে পারেন), ১০-১৫ পিস তাজা মাশরুম (ছাতার অংশ)।

মাশরুম ফ্রাই তৈরি কররা নিয়ম

মাশরুম ধোয়া না থাকলে আগে ভাল করে ধুয়ে নিন। এর পর এতে বেসন চাউলের গুঁড়া বা সুজি, ডিম, আদা বাটা (ভালো না লাগলে বাদ দিন), মরিচের গুঁড়া, পরিমাণমতো লবন, কালোজিরা, ও সামান্য পানি মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। একটি পাত্রে তেল গরম করুন। এপর্যায়ে বেসনের মিশ্রণে মাশরুম চুবিয়ে গরম ফুটন্ত তেলে ভেজে নিন। হয়ে গেল আপনার মাশরুম ফ্রাই। তেল সারানোর জন্য টিস্যুপেপারে রাখুন।

২. মাশরুম স্যুপ রেসিপি

মাশরুম ইতিমধ্যে একটি অন্যতম পুষ্টিকর খাবার আর এর স্যুপ আপনাকে আর কয়েকগুন বেশি পুষ্টি সরবরাহ করতে পারে। বাসায় বসে মাশরুমের স্যুপ তৈরি করা একদমই সহজ কাজ। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন মাশরুম স্যুপের একটি সহজ ও সুস্বাদু রেসিপি জেনে নেওয়া যাক-

প্রয়োজনীয় উপকরণ

বড় সাইজের ২ টি পেঁয়াজ কুচি, ২ কোয়া রসুন, ৫ স্টিক লেমন গ্রাস, ৮-১০ টি লাল কাঁচা মরিচ (পাকা), ১ মুষ্টি ধনিয়া পাতা কুচি, ১ টি লেবুর খোসা কুচি (উপরের সবুজ অংশের নিচের সাদা অংশ) , ৮-৫ টি শুকনা বা খালি তেলে ভাঁজা চিংড়ি মাছ, পরিমাণ মতো হলুদের গুঁড়া (১ চা চামচ বা কম), ২ টেবিল চামচ তেল। (এগুলো ব্লেন্ড করতে হবে)।

স্যুপ প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে দেওয়া সবগুলো উপকরন ভালভাবে পরিষ্কার করে নিন। এবার ব্লেন্ডার মেশিনে দিয়ে ভালভাবে বেলন্ড করে পেস্ট এর মতো তৈরি করুন। বাসায় ব্লেন্ডার না থাকলে বেটে নিন। এ পর্যায়ে পেস্ট এর সাথে ১ কাপ কুচি করা বা বাটন মাশরুম, ১ বা আধা কাপ চিকেন সেদ্ধ (সলিড মাংস নেওয়া ভাল), আধা কাপ বা ১ টি টমেটো কুচি,  ১ কাপ, নারিকেলের দুধ (না থাকলে বাদ দিন), লবন স্বাদ মতো, ২-৪ পাতা লেমন গ্রাস, লেবুর রস ৩ টেবিল চামচ ও প্রয়োজন মতো পানি দিয়ে মাঝারি আঁচে ১৫-২০ মিনিট রান্না করুন। অরিতিক্ত স্বাদের জন্য ধনিয়া পাতা কুচি ছিটিয়ে দিতে পারেন। হয়ে গেল মজাদার মাশরুম স্যুপ।

৩ গার্লিক মাশরুম রেসিপি

সম্মানিত ভিজিটর, গার্লিক মাশরুম অনেকেরি অন্যতম একটু পছন্দের মেন্যু। বাসায় বসে রেস্টুরেন্টএর মোট করে আপনিও গার্লিক মাশরুম তৈরি করে নিজ খেতে পারেনও পরিবারের প্রিয় মানুষদের মাঝে পরিবেশন করতে পারেন। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন এ পর্যায়ে গার্লিক মাশরুম রান্না করার নিয়ম জেনেন নেওয়া যাক-

প্রয়োজনীয় উপকরণ

৫-৬ কোয়া রসুন কুচি, ২ টেবিল চামচ বাটার, ২ চা চামচ সয়া সস, ৫-৮ তা শুকনা মরিচ (ঝাল কম পছন্দ করলে ২-৩ টা), ১ টি গাজর, ১/৪ ক্যাপ্সিকাম, ২০০-২৫০ গ্রাম মাশরুম (ক্যান কিনলে ৪৫০ গ্রামের বা আধা কেজি), ১ টা টমেটো স্লাইস করে নিন, লবন পরিমাণ মতো, ১ চা চামচ গোল মরিচের গুঁড়া, ১ চা চামচ পাপড়িকা পাউডার (না থাকলে বাদ দিন)।

যেভাবে গার্লিক মাশরুম তৈরি করবেন

মাশরুমের ক্যান থেকে মাশরুমগুলো ভালো করে ৪-৫ বা পরিষ্কার ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নিন। চাইলে হালকা লবন দিয়ে একটা ধোয়া দিতে পারেন। এক একটি মাশরুম ফালা করে ৪ ভাগে কেটে নিন। ক্যাপসিকাম স্লাইস করে কেটে নিন (জুলিয়ান কাট), গাজর লম্বা চিকন চিকন স্লাইস করে কেটে নিন। একটি প্যান গরম করে ২ টেবিল চামচ বাটার দিন, গরম হয়ে গলে ফুটতে থাকলে এর মধ্যে রসুন কুচি দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়তে থাকুন, এর মধ্যে শুকনো মরিচগুলো কেটে কেটে দিয়ে দিন। মরিচ এর কালার লালচে হয়ে আসলে এর মধ্যে মাশরুম দিয়ে দিন ও নাড়তে থাকুন। ৩-৪ মিনিট পর ২-৩ চা চামচ সয়া সস দিন। ৫-৬ মিনিট ভাজতে থাকুন (নাড়তে থাকুন)।

এ পর্যায়ে মাশরুমগুলো একপাসে এনে তেল থেকে আলাদা করে একটি পাত্রে রাখুন। প্যানে থাকা তেলে গাজর গুলো ভাজুন, একটু লালচে হয়ে গেলে এর মধ্যে ক্যাপসিকাম গুলো দিয়ে দিন। একটু সবুজ হয়ে গেলে এর মধ্যে টমেটোগুলো দিয়ে নাড়তে থাকুন। ২ মিনিট পড়ে এর মধ্যে গোল মরিচের গুড়া ও এক চিমটি লবন ও পাপড়িকা পাউডার দিয়ে নিন। এবারে প্লেটে বা আলাদা বাটিতে একপাশে মাশরুম ও পড়ের ভাজিগুলো দিয়ে পরিবেশন করুন। হয়ে গেল স্পাইসি গার্লিক মাশরুম।

৪ চিকেন মাশরুম রেসিপি

চিকেন প্রিয় মানুষদের জন্য এটি হয়তো সবচেয়ে বেশি পছন্দের রেসিপি হতে যাচ্ছে। চিকেনের স্বাদ সাথে মাশরুমের বাড়তি পুষ্টি উফ, ভাবা ই যায় না। চলুন কথা না বাড়িয়ে চিকেন মাশরুম রেসিপি জেনে নেওয়া যাক-

প্রয়োজনীয় উপকরণ

আধা কেজি মুরগির মাংস, ১৫ পিস মাশরুম, ১-২ টি টমেটো কুচি, ১ কাপ পিয়াজ বাটা, ১/২ (হাফ) টেবিল চামচ রসুন বাটা, ১ চা চামচ হলুদের গুঁড়া, ১ চা চমচ লঙ্কা গুঁড়া, ১ চা চামচ জিরা গুঁড়া, ১ চা চামচ ধনে গুঁড়া, পরিমাণ মতো লবন ও তেল।

যেভাবে চিকেন মাশরুম রান্না করবেন

প্রথমে মাশরুমগুলো ভালভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন এ পর্যায়ে ফালি ফালি করে কেটে নিন। একটি করাই বা প্যান নিন এর মধ্যে তেল দিন সামান্য গরম হলে পিঁয়াজ কুচি দিয়ে হালকা ভেজে এর মধ্যে টমেটো, আদা-রসুন বাটা দিয়ে ১-২ মিনিট ও বাকি মশলা দিয়ে আর ২ মিনিট ভাল করে কষান। মশলা কষানো হয়ে গেলে আগে মুরগির মাংস ও মাশরুম দিয়ে ২-৪ মিনিট কষান। এ পর্যায়ে ১ গ্লসা পরিমাণ পানি দিয়ে নেড়ে দিয়ে অল্প আচে ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন। সামান্য চিকেন মশলাও ব্যবহার করতে পারেন। মাঝে মাঝে নেড়ে দিন। মাখা মাখা বা সামান্য ঝোল থাকতে এর উপর ধনে পাতা কুচি ছিটিয়ে দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ধেকে রাখুন। কিছুক্ষণ পর চুলা থেকে নামিয়ে নিন। চিকেন মাশরুম রান্না করার মাঝে লবন টেস্ট করে নিন। হয়ে গেল আপনার মজাদার চিকেন মাশরুম রান্না করা। এখন জাস্ট পরিবেশন করুন।

৫. ওয়েস্টার মাশরুম রেসিপি

ওয়েস্টার মাশরুম আমার অন্যতম একটি রেসিপি। সবগুলো মাশরুম রেসিপির মধ্যে এটি আমার সব চেয়ে বেশি পছন্দ। আমিও আশা করি আপনাদেও ভাল লাগবে।

প্রয়োজনীয় উপকরণ

৪০০ গ্রাম ওয়েস্টার মাশরুম (যদি না থাকে তবে রেগুলার বাটন মাশরুম দিয়েও করতে পারেন), ২ টেবিল চামচ তেল, হাফ চা চামচ এসাফিটিডা (Asafetida), ২ টি মিহি করে কুচি পিঁয়াজ, কয়েকটি কারি পাতা, ২ চা চামচ আদা বাটা, হাফ চা চামচ হলুদের গুঁড়া, ১-২ চা চামচ মরিচের গুঁড়া, ২ টি টমেটো কুচি, ১ টি লেবু, হাফ টেবিল চামচ ধনিয়ে পাতা কুচি, ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়া।

যেভাবে ওয়েস্টার মাশরুম রান্না করবেন

মাশরুমগুলো ছিড়ে ছিড়ে নিন, একটি প্যান না কড়াইতে তেল দিয়ে সামান্য গরম হলে এর মধ্যে পিয়াজ কুচি দিয়ে নাড়তে থাকুন যতক্ষণ না লালচে রঙ আসে। লালচে রঙ আসলে কারি পাতা গুলো দিয়ে দিন, এবং নাড়তে থাকুন। ১-২ মিনিট পড়ে এর মধ্যে ২ চা চামচ আদা বাটা দিন এবং হলুদের গুঁড়া দিন।  ১-২ মিনিট নেড়ে দেড় (১.৫) চা চামচ ধনিয়ার গুঁড়া দিন এবং ১ মিনিট পর ১-২ চামচ মরিচের গুঁড়া। একটু নেড়ে এর মধ্যে ২ টি টমেটো কুচি দিয়ে দিয়ে একটু কষিয়ে নিন (অয়ানি দেওয়ার দরকার নাই)। এরমধ্যে মাশরুম দিয়ে মশলাগুলো খুন্তি দিয়ে মিশিয়ে দিন। এর পড়ে পরিমাণ মতো লবন দিয়ে একটু নেড়ে ঢাকনা দিয়ে সামান্য আচে চুলায় রাখুন।

১০ মিনিট পড়ে এটি থেকে এমনি এমনি সামান্য ঝোল বেড়িয়ে আসবে। এর পর ১ চা চামচ গরম মশলা পাউডার ছিটিয়ে দিন। স্বাদ বাড়াতে একটি লেবু চিপে রস দিয়ে দিন। না চাইলে দরকার নেই। সব কিছু ভাল ভাবে মিশিয়ে দিন। সর্বশেষ হাফ টেবিল চা চামচ ধনিয়ে পাতা কুচি ছিটিয়ে দিয়ে চুলা কমিয়ে ৫ মিনিট ঢেকে রাখুন। হয়ে গেল মজাদার ওয়েস্টার মাশরুম রান্না করা।

সর্বশেষ

প্রিয় ভিজিটর, রান্না করার আগে ভাল করে যেগুলো ধোয়া যায় ভাল করে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নিন ও আপনার হাত জীবাণুমুক্ত করে নিন। ঝাল কম বা বেশি পছন্দ করলে বাড়িয়ে কমিয়ে দিতে পারেন। আপনার কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকলে লিখুন আমাদের কাছে। আর জানিয়ে দিন কোন রেসিপিটি আপনার সবচেয়ে বেশি ভাল লাগে।

আরও পড়ুনঃ মাশরুম খাওয়ার উপকারিতা ও সাবধানতা।