https://tipswali.com/wp-content/uploads/2021/06/coffee-recipe-bangla.jpg

কফি রেসিপি খুঁজছেন? কিন্তু আপনার পছন্দের কফির রেসিপিটা খুঁজে পাচ্ছেন না? এইতো মনা তুমি সঠিক যায়গায় এসে পড়েছ।

মস্তিস্ক চাঙ্গা করতে কফির জুড়ি নেই। আমাদের অনেকেই জানে না কিভাবে কফি বানাতে হয়। আবার অনেকে ভেবে থাকে রেস্টুরেন্টে কিভাবে কফি তৈরি করে। আসলে এই কাজ একদমই সহজ। আপনি চাইলে নিজেই বাসায় বসে রেস্টুরেন্টের মতো করে কফি তৈরি করে নিজে পান করতে পারেন কিংবা আপনার বাসায় আসা অতিথি কিংবা বন্ধুদের পরিবেশন করতে পারেন।

প্রিয় ভিজিটর, আজকের লেখাজুড়ে বিস্তারিত কথা হবে, বিভিন্ন জনপ্রিয় কফির রেসিপি, কফি কিভাবে বানাতে হয় বা বানানোর নিয়ম সম্পর্কে। আমাদের লেখায় আমরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ও আমাদের দেশের জনপ্রিয় কয়েকটি কফির রেসিপি ও বানানোর নিয়ম শেয়ার করবো।

১. কোল্ড কফি বানানোর নিয়ম বা রেসিপি

নিজে পান করার জন্য কিংবা বাসায় মেহমানের জন্য খুব সহজেই আপনি বাসায় বসে কোল্ড কফি বানাতে পারেন। চলুন কোল্ড কফি বানানোর নিয়ম জেনে নেওয়া যাক-

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ দুধ, চিনি, কফি পাউডার, বরফের টুকরো, আইস্ক্রিম (না থাকলে সমস্যা নেই)।

যেভাবে বানাবেন(রেসিপি): প্রথমে পরিমাণ মতো দুধ ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। পরিমাণ মতো পাউডার একটি পরিষ্কার কাপড়ে মুড়ে সামান্য গরম পানিতে (পরিমাণ মতো) চুবান বা ডোবান। যত সময় পানির রঙ গাড় না হয় তত সময় পুটুলিটা নেড়ে নেড়ে পানিতে গুলে নিন। ব্লেন্ডার এ দুধ, বরফের টুকরো, পরিমাণ মতো চিনি, আইস্ক্রিম ও কফি গোলা পানি, দুধ একত্রে দিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। আপনি চাইলে মিক্সার ব্যবহার করতে পারেন।

২. কাপুচিনো কফির রেসিপি

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ প্রতি এক কাপের জন্য চায়ের কাপের এক কাপ ফুটানো দুধ, ২ টেবিল চামচ গরম পানি, হাফ চা চামচ কফি পাউডার,  ২ চা চামচ চিনি, ও কফি বিটার।

যেভাবে কাপুচিনো (ক্যাপাচিনো) কফি বানাবেনঃ গরম দুধ কাপে নিয়ে কফি বিটার এর সাহায্যে ফেনা না হওয়া পর্যন্ত বিট করে নিন। এফোমের মতো হয়ে গেলে এর মধ্যে গরম পানি, কফি ও পরিমাণ মতো চিনি দিয়ে ভাল করে নেড়ে নিন। তৈরি হয়ে গেল আপনার পছন্দের কাপিচুনো কফি।

৩. ক্যাফে মোচা

অন্যতম জনপ্রিয় একটি কফি ক্যাফে মোচা। মোচা এস্প্রেসো, চকলেট এবং গরম দুধের সমন্বয়ে তৈরি এই কফি অনেকের কাছে বেশ প্রিয়। চলুন জেনে নেওয়া যাক ক্যাফে মোচা তৈরির উপকরন ও বানানোর নিয়ম-

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ ৩০ মিলি এস্প্রেসো অথবা ইনস্ট্যান্ট কফি, ১৫-২০ গ্রাম পরিমাণ চকলেট গুঁড়া, পরিমাণ মতো চিনি, ২৫০ মিলি ফুটানো ঘন দুধ।

বানানোর নিয়মঃ প্রথমে কাপে এক চা চামচ পরিমাণ চিনি নিন, চকোলেট গুঁড়া, ও গরম পানি কাপে দিয়ে ভাল করে মিক্স করে নিন। এর সাথে সাথে গরম দুধ একটি বিটারের সাহায্যে ফেনা করে নিন। অথবা একটি কাচের বোতলে নিয়ে ঝাঁকিয়ে ফেনা করে নিতে পারেন। এরপর কাপে ঢালুন। আপনি বেশি চকলেট পছন্দ করলে ফেনার উপরে চকোলেটের গুঁড়া ছিটিয়ে দিতে পারেন কিংবা নকশাও করতে পারেন।

৪. ব্ল্যাক কফি রেসিপি

আমাদের অনেকেরই ব্ল্যাক কফি পছন্দ। এটি অনেকটা রেগুলার কফির মতো। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে ব্ল্যাক কফি বানাতে হয়ঃ

প্রয়োজনীয়  ১৫০ থেকে ২০০ মিলি ফুটানো গরম পানি, ৪৫-৫৫ গ্রাম কফি গুঁড়া, পরিমাণ মতো চিনি। চিনি পছন্দ না করলে দরকার নেই।

ব্ল্যাক কফি প্রস্তুত প্রণালীঃ প্রথমে এক চা চামচ ফুটানো গরম পানি মগে বা কাপে নিয়ে এক চা চামচ ইনস্ট্যান্ট কফি দিয়ে ভালো ভাবে নেড়ে মিশিয়ে নিন। ১ মিনিট ভালো করে নাড়ানোর পরে এর মধ্যে পরিমাণ মতো পানি ও চিনি দিয়ে চায়ের মতো করে নাড়ুন। হয়ে গেল আপনার পছন্দের ব্ল্যাক কফি। চিনি পছন্দ না করলে বাদ দিন। আপনি চাইলে পরিমাণ মতো দুধ দিয়ে রেগুলার কফি তৈরি করতে পারেন।

৫. হট কফি রেসিপি

বিভিন্ন ধরণের হট কফি রয়েছে। আপনি চাইলে বাসায় বসে রেস্টুরেন্ট এর মতো করে হট কফি তৈরি করে নিজে পান করার পাশাপাশি বাসার অন্যদের কিংবা মেহমানদের মাঝেও পরিবেশন করতে পারেন। চলুন এবারে হট কফি বানানোর নিয়ম জেনে নেওয়া যাক-

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ ২ কাপ পরিমান দুধ, ব্রাউন সুগার ২ চামচ, ৪ টেবিল চামচ কোকো পাউডার, ১.৫ চা চামচ কফি (ইনস্ট্যান্ট কফি), প্রয়োজন মতো লবন (যদি না ভাল লাগে বাদ দিন), এবং পরিমাণ মত চিনি।

যেভাবে বানাবেনঃ এক বা দুই চা চামচ গরম পানি ও কফি দিয়ে ভাল করে বিট করুন। দুধ গরম করে এর মধ্যে চিনি, কোকো পাউডার, ব্রাউন সুগার এবং সামান্য এক চিমটি লবন দিয়ে মাঝারি তাপে জ্বাল দিন। এবারে কফি মগে বা কাপে দুধের মিশ্রণ ঢেলে উপরে কফির সাহায্যে ডিজাইন করুন। একটু বেশি স্বাদ চাইলে সামান্য চকলেট গুঁড়া ছিটিয়ে দিতে পারেন।

৬. গ্রীন কফি বানানোর নিয়ম

ওজন কমাতে গ্রিন কফির বেশ সুনাম রয়েছে। মূলত যাদের ওজন একটু বেশি তাদের জন্যই গ্রিন কফি। এটি দিনে দুই বা একবার সকালে নাস্তার আধা ঘণ্টা পড়ে খাওয়া ভালো। বাজারে গ্রিন কফি পাওয়া যায় এর সাহায্যে আপনি বাসায় বসে বানিয়ে ফেলতে পারে।

যা যা লাগবেঃ গ্রীন কফি (বাজারে প্যাকেট কিনতে পাওয়া যাবে), এক কাপ ফুটানো গরম পানি, মধু বা সামান্য চিনি।

যেভাবে গ্রীন কফি বানাবেনঃ গরম পানিতে কফি, পাউডার দিয়ে ও পরিমাণ মতো মধু বা চিনি দিয়ে চামচ দিয়ে নাড়ুন। আপনার ভালো না লাগলে চিনি বা মধু দেওয়ার দরকার নেই। এইতো হয়ে গেল আপনার গ্রিন কফি তৈরি করা।

৭. বুলেট কফি বা কিটো কফি রেসিপি

অনেকে একে ফ্যাট কফি বলেও চেনে। যাহোক এ পর্যায়ে চলুন যেনে নেওয়া যাক কিভাবে বুলেট বা কিটো কফি বানাবেন সে সম্পর্কে-

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ ২ চা চামচ ইনস্ট্যান্ট কফি, গরম পানি, ২ চা চামচ অরগানিক নারিকেল তেল বা এমসিটি অয়েল, ১.৫ চা চামচ বাটার, কাজু বাদামের দুধ (না থাকলে বাদ দিন), চাইলে সামান্য চিনি বা মধু নিন।

তৈরি করার নিয়মঃ বুলেট কফি বা কিটো কফি তৈরির জন্য প্রথমে একটি কাপে দুই চা চামচ পরিমাণ কফি ও দু চা চামচ গরম পানি দিয়ে ভাল করে বিট করে নিন। এর পর এর মধ্যে পরিমাণ মতো গরম পানি দিন। এর পর একে একে বাটার, দুধ, চিনি বা মধু ও এমসিটি অয়েল বা অরগানিক নারিকেলের তেল দিয়ে নাড়ুন। তৈরি হয়ে গেল বুলেট বা কিটো কফি।

সম্মানিত ভিজিটর, আমার মনে হয় আমাদের লেখা আপনার জন্য কিছুটা হলেও উপকারে আসছে। আমাদের লেখা সম্পর্কে আপনার মতামত, পরামর্শ কিংবা অভিযোগ থাকলে শেয়ার করতে পারেন আমাদের সাথে।