https://tipswali.com/wp-content/uploads/2021/04/tokma.jpg

এশিয়া দক্ষিন আঞ্চল ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে তোকমার শরবত অন্যতম একটি জনপ্রিয় পানীয়। বিশেষ করে রমজান মাসে ইফতারেরে সময় তোকামা ছাড়া আমাদের একদম চলেই না বলা যায়।

সম্মানিত পাঠক, আজকের লেখা জুড়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো তোকমা দানা কি, এর পুষ্টিগুন, সঠিক ভাবে খাওয়ার নিয়ম, কীভাবে শরবত বানালে বেশি পুষ্টি পাওয়া যায়, এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, তোকমার পাইকারি ও খুচরা দাম, কোথায় কিনতে পাওয়া যায় সহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে বিস্তারিত। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

তোকমা দানা কি?

তোকমা দানা যার ইংরেজি অর্থ Sabja Seeds, Tukmaria Seeds, Basil Seed. মূলত দক্ষিন এশিয়াতে এর চাষ বেশি হয়। এবং তোকমার উৎপত্তি স্থল হিসেবে দক্ষিন এশিয়াকে বিবেচনা কোরা হয়ে থাকে। এগুলো দেখতে কিছুটা চ্যাপ্টা গোলাকার ও কালো।

তোকমার গুনাগুন

দামে কম হলেও পুষ্টিগুন এর দিক থেকে তোকমা অনেক এগিয়ে। এতে রয়েছে ৪২ শতাংশ কার্বোহাইড্রেট, ২০% প্রোটিন, ২৫% ফ্যাট (প্রায়) এবং প্রচুর পরিমান ফাইবার। পাশাপাশি ওমেগা-৩, ফ্যাটি এসিডের অন্যতম একটি ভালো উৎস এটি। এছাড়াও এতে থাকছে পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, তামা, ম্যাগনেসিয়াম ও সামান্য ভিটামিন সি। (সুত্র- হেলদিফেইম)

তোকমা দানার উপকারিতা

ওজন কমানোর জন্য জন্য যারা বিভিন্ন পদ্ধতি অনুসরন করে থাকে তাদের মধ্যে তোকমা সম্পর্কে জানে না এমন মানুষের সংখ্যা অনেক কম। আর আমার মনে হয় তোকমার পুষ্টিগুন শুনে আপনি এতো সময় ধারনা করে ফলেছেন এর উপকারিতা কেমন হতে পারে। তো চলুন তোকমার উপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাকঃ

১) ওজন কমায়

আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ তোকমা দানা ওজন কমাতে বেশ কার্যকরী। এছাড়া এতে থাকা ফাইবার ক্ষুদা কমায়। ফলে আমাদের ক্যালোরি খাওয়ার পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে।

২) রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ

এটি আপনার দেহের বিপাকের গতি ধীর করে দেয় এবং কার্বসকে গ্লুকোজে রূপান্তরিত করে। হেলদিফেইম এর মতে তোকমা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বিশেষ উপকারী।

৩) কোষ্ঠকাঠিন্য এবং অম্লতা দূর

মূলত পানি কম খাওয়ার কারনে কিংবা আমাদের শরীরে পানির মাত্রা কমে গেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয়। তোকমা পানিতে ভেজানোর ফলে এতে প্রচুর পানি যুক্ত হয় এবং আমাদের পেটে জমে থাকা আস্তরণ নরম করে এবং অন্ত্রের গতিবেগকে উৎসাহ দেয়। পাশাপাশি এটি আমাদের অন্ত্রের ভালো ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি করে।

৪) কাশি ও সর্দি নিরাময়

তোকমা দানা আমাদের স্পাসাম্যাটিক পেশীগুলি প্রশমিত করে এবং তাদের শিথিল করতে সহায়তা করে। যা হুপিং কাশি নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। পাশাপাশি এটি আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। 

৫) ত্বক ও চুল

নিয়মিত তোকমা দানা খেলে আপনার শরীরে কোলাজেন নিঃসরণে সহায়তা করে যা ত্বকের নতুন কোষ গঠনে সহায়তা করে এবং আপনার স্কিন হয়ে ওঠে আরও বেশি সতেজ। পাশাপাশি আপনি যদি লম্বা ও শক্ত চুল পেতে চান তাহলে আপনার প্রয়োজন ভিটামিন-কে, আয়রন ও প্রোটিন তোকমায় এই সকল উপাদান বিদ্যমান। আর সাবজা দানার অ্যান্টিঅএক্সিডেন্ট ত্বক ও চুলের জন্য বিশেষ উপকারী।

তোকমা খাওয়ার নিয়ম ও কয়েকটি রেসিপি

তোকমাতে অনেক পুষ্টিকর উপাদান থাকায় অনেকেই খেয়ে থাকে তবে অনেকের কাছে ভিজিয়ে রাখাটা ও সেবন করা একটা বিরক্ত কাজ মনে হতে পারে। তাই আপনি চাইলে নিচে দেওয়া রেসিপি ট্রাই করতে পারেন যা তোকমার পানীয়র সাথে আরও বেশি পুষ্টিগুন যোগ করবেঃ

একটি লেবুর রস (বেশি পানির জন্য বেশি লেবু),  ১ বা ২ গ্লাস ঠাণ্ডা বা নর্মাল পানি, সম্ভব হলে ২ টেবিল চামচ স্ট্রবেরি সিরাপ, ও দ২ টেবিল চামচ পরিমান বা পরিমান মতো তোকমা দানা নিন, কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে ১০-১৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। সাথে পরিমান মতো লবন। পুদিনা পাতা ও নেওয়া যেতে পারে।

একটি পাত্রে সবগুলো উপকরণ দিয়ে শরবত তৈরি করে নিন। আপনি চাইলে সামান্য চিনি বা গুড় দিয়ে নিতে পারেন। আর নারিকেলের পানির সাথে এর স্বাদ অতুলনীয়।

তোকমার অপকারিতা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

মূলত পরিমাণ মতো সেবনে তোকমা দানার বা তোকমার কোন ক্ষতিকর দিক নেই। তবে স্বাস্থ্যসেবীরা শিশু ও গর্ভবতী মহিলাদের এগুলো না খাওয়ার পরামর্শ দেয়। এর কারন হিসেবে বলা হয়েছে তোকমা দানা যদি পানিতে ভালোভাবে না মেশানো হয় ও বেশি ঘন করে পান করা হয় তবে এটি শ্বাসরোধ করতে পারে।

এছাড়া আপনার শরীরের কোথাও যদি অস্ত্রোপচার হয়ে থাকে তবে এর দুই সপ্তাহ আগে ও যতদিনে কাটা স্থান না শুকায় ততো দিন না খাওয়া উত্তম।

তোকমার দাম

১ কেজি তোকমার দাম ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা। মূলত মৌসুম ও কোয়ালিটিভেদে তোকমার দামের পার্থক্য হয়।

কোথায় তোকমা কিনতে পাওয়া যায়

বাংলাদেশ পাশের দেশ ভারতে তোকমা দানা খুবই সহজ লভ্য আপনার বাসার পাশের মুদি দোকান থেকে শুরু করে বাজারের কোন এক কনে ভ্যানেও তোকমা কিনতে পাওয়া যায়।

Spread the love