https://tipswali.com/wp-content/uploads/2021/06/Tulsi.jpg

সামান্য কাশি কিংবা খুসখুসে কাশি হলেই মুরব্বীদের প্রথম পরামর্শ কয়েকটা তুলসি পাতা চিবিয়ে বা পাতার রস খাও। আর হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের তুলসি এক পবিত্র নাম। এর কারন হচ্ছে হিন্দু ধর্মের অন্যতম প্রধান দেবী লক্ষ্মীর অপন নাম তুলসি। আর এই কারনে তাদের ধর্মে মনে করা হয় Tulsi পাতা চিবিয়ে খেলে অমঙ্গল হবে তাই তারা তুলসি পাতা গিলে খেতে বলা হয়। এছাড়াও দেব দেবীর পূজোয় তুলসি পাতা ব্যবহার করা হয়।

শুধু মাত্র এখানেই তুলসির ব্যবহার শেষ নয়, এতে রয়েছে আশ্চর্য ঔষধি গুনাগুণ। আপনি অবাকও হয়ে যেতে পারেন, প্রশ্ন করে ফেলতে পারেন যে, অযত্নে বেড়ে ওঠা Tulsi পাতায় আবার কি পুষ্টি কিংবা ঔষধিগুনাগুন আছে?

সম্মানিত ভিজিটর আজকের লেখাজুড়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে, তুলসি পাতার গুনাগুণ, উপকারিতা, তুলসি পাতা খাওয়ার নিয়ম, খাওয়ার ক্ষতি বা অপকারিতা, Tulsi Powder গুড়ার দাম।

তুলসী কি?

তুলসী অর্থ তুলনা নেই। ইংরেজি অর্থ না নাম Holy Tulasi এর বৈজ্ঞানিক নাম Ocimum Sanctum। তুলসী মূলত একটি ঔষধি উদ্ভিদ। মূলত দক্ষিন এশিয়ার বিভিন্ন দেশে এই উদ্ভিদের বেশি দেখা মেলে। তুলসী চাষের জন্য আলাদা বিশেষ যত্ন নিতে হয় না। রাস্তার ধারে, বাগানে-বনে এমনিতে জন্মে। একটি Tulsi গাছের উচ্চতা ২ থেকে ৩ মিটার পর্যন্ত হয়ে থাকে। এর পাতার চারপাশে খাজকাটা থাকে।

তুলসি পাতার উপকারিতা

হেলথ লাইন এর তথ্য মতে তুলসি পাতায় রয়েছে ভিটামিন এ, সি। এছাড়াও এতে আরও রয়েছে ক্যালসিয়াম, জিঙ্ক,আয়রন। চলুন এপর্যায়ে তুলসি পাতার উপকারিতা জেনে নেওয়া যাক।

মানসিক হতাশা ও দুশ্চিন্তা দূর করে

হেলথ লাইন ও Hindawi এর ২০১৭ সালের একটি আর্টিকেল অনুসারে এটি অ্যাডাপ্টোজেন হিসেবে কাজ করে। অ্যাডাপ্টোজেন হচ্ছে এক প্রকার প্রাকৃতিক পদার্থ যা আপনার শরীরকে মানসিক চাপের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে সাহায্য করে। মানুষ ও প্রানির উপর একটি বিশেষ গবেষণায় দেখা দেখা যায় এটি মানসিক চাপ দূর করার পাশাপাশি সেক্সুয়াল সমস্যার উন্নতি, ঘুমের সমস্যা ও ক্লান্তি দূর করে।

শরীরকে প্রাণবন্ত করে

এই পাতায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের মাত্রাও বেশ ভাল যা আপনার শরীরে উদ্দীপনা যোগায় ও শরীরকে প্রাণবন্ত করে তোলে। ইউএস ন্যাশনাল লাইব্রেরী অভ মেডিসিন PMC এর PMC4296439 নং আর্টিকেল অনুসারে এটি আপনার শরীরকে টক্সিক ক্যামিকেল থেকে রক্ষা করতে পারে। এছাড়াও এটি ক্যান্সারের কোষগুলির বৃদ্ধি হ্রাস করে ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে পারে।

চোখ ও অরাল উন্নতি

ডাবর এর মতে তুলসি এক প্রকার প্রাকৃতিক মুখ ফ্রেশনার এবং প্রাথমিক জীবাণুনাশক। Tulsi পাতার রস বা পাউডার আপনার মুখের ব্যাকটেরিয়া ধবংস করে এবং দাঁতের গহ্বর, ফলক, এবং দুর্গন্ধ থেকে দাঁতকে রক্ষা করে।

অন্যদিকে এর অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য ভাইরাল, ব্যাকটেরিয়া, এবং ছত্রাক সংক্রমণ প্রতিরোধ করে চোখের স্বাস্থ্য উন্নয়নে সহায়তা করে।

তুলসি পাতা খাওয়ার নিয়ম

আর.জি. কার মেডিকেল কলেজ এর তাপশ কুমার সুর বলেন- হতাশা ও মানসিক ক্লান্তি দূর করতে প্রতিদিন ৫০০ মিলিগ্রাম তুলসি পাতার রস বা গুঁড়া ভেজানো পানি পান করুন।

তুলসি পাতা খাওয়ার সবচেয়ে সেরা উপায় হচ্ছে চায়ের সাথে খাওয়া। এই চা আপনার শরীরে রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করবে। এক কাপ হারবাল চায়ের জন্য ১/৪ কাপ পরিমাণ পাতা পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন এবং চুলা নিভিয়ে ১০-১২ মিনিট রেখে দিন। এর পর ছেঁকে এর মধ্যে এক চা চামচ পরিমাণ মধু ও দুই চা চামচ বা পরিমাণ মতো লেবুর রস দিয়ে চা বানিয়ে খেতে পারেন।

তুলসি পাতা খাওয়ার অপকারিতা বা ক্ষতিকর দিক

পুষ্টিবিদদের মতে এই পাতায় অনেক বেশি পারদ ও আয়রন থাকে যা চিবিয়ে খেলে এগুলো আপনার দাতে নির্গত হয়। ফলে বেশি সময় ধরে মুখে রেখে দিলে আপনার দাতের ক্ষতি  করতে পারে। তবে বিকল্প হিসেবে Tulsi পাতার গুড়া খেতে পারেন।

তুলসি পাতার গুড়া

অরগানিক তুলসি পাতার গুড়া একই কাজ করে। ১০০ গ্রাম ভাল মানের Tulsi Powder বা গুঁড়ার দাম ১২০-১৫০ টাকা।

সম্মানিত ভিজিটর, আমাদের লেখা নিয়ে আপনাদের কোন জিজ্ঞাসা কিংবা পরামর্শ থাকলে শেয়ার করতে পারেনা আমাদের সাথে । কিংবা আপনার কোন টিপস শেয়ার করতে পারেন টিপসওয়ালীর সাথে। ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, নিরাপদে থাকুন।