hands care bangla

আপনি বিশ্বাস করেন আর না করেন আপনার হাত আপনার সম্পর্কে অনেক কিছু বলে দেয়। আপনি আপনার নিজের প্রতি কতোটা যত্নশীল অথবা আপনার বয়স কতো। এমনকি আপনার বয়স প্রকাশ পাওয়ার প্রথম পার্ট হচ্ছে আপনার হাত।

অপরিচিত কাউকে বিশেষ করে মহিলাদের বয়স জিজ্ঞাস করতে নেই। বিশেষ গবেষণায় দেখা গেছে, বুদ্ধিমান মানুষজন আপনার হাতের ছাপ দেখে মনে মনে আপনার বয়স যাচাই করে চেষ্টা করে।

প্রতিদিনের সহস্র কাজে আমাদের শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হাতের ব্যবহার করতে হয়। হাতের গুরুত্ব সে-ই বুজে যার হাত নেই কিংবা ব্যথা বা চোটের কারনে আমরা যখন হাত দিয়ে কিছু ধরতে না পারি।

কতো না ধুলাবালি মাখছে কিংবা রোদে পুরছে আবার বৃষ্টিতে ভিজছে! আর আপনি এই মহামূল্যবান হাতের যত্নের কথা কি কখনো ভেবেছেন? হ্যা, প্রিয় পাঠক/পাঠিকা, আজকের লেখাজুড়ে কথা হবে আপনি কিভাবে আপনার হাতের যত্ন নিতে পারেন।

শুকনো হাত বা শুষ্ক হাতের যত্ন যেভাবে নিবেন

অতিরিক্ত ধোয়া, গরম জল বা শুকনো শীতের বাতাসহ অনেক কারনে হাতে শুষ্ক ভাব চলে আসতে পারে। শুষ্ক হাতকে আকর্ষণীয় ও নরম দেখানোর কিছু টিপসঃ

১. হাত ধোয়ার সাথে সাথেই আপনার হাতে যদি শুষ্ক ভাব চলে আসে তবে আপনার হাতের তালুরদিকে নজর দিন। হাত ধোয়ার পর হাতের তালুতে পরিমান মতো স্কিন লোশন নিয়ে আপনার ভেজা ভেজা থাকতে হাতের স্কিনের নিয়মিত এপ্লাই করুন। অল্পদিনেই ভালো ফলাফল পাবেন।

২. হাতে বার বার পানি লাগলেও আপনার হাতের স্কিনের সৌন্দর্য নষ্ট হতে পারে। আপনার স্কিন যদি শুষ্ক হয়ে থাকে তবে আপনি যখন কোন কিছু ধোয়ার সময় হাতে রাবারের হ্যান্ড গ্লাবস ব্যবহার করুন। যা আপনার স্কিনকে ক্ষারযুক্ত সাবানের ক্ষার থেকে রক্ষা করবে।

৩. অন্যান্য ক্ষারযুক্ত সবান কিংবা কড়া পারফিউম আপনার সংবেদনশীল স্কিনের জন্য ক্ষতির কারন হতে পারে। এমনটা হলে মিস্তুরাইজিং সাবান ব্যবহার করুন। বিশেষ করে শীতকালীন সময়ে।

৪. রান্নার সময় হাতে আচ লাগা একটি কমন ব্যাপার। রান্নার সময় চুলার আগুনের আচে আপনার হাতের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে  যেতে পারে। তাই বলে রান্না বন্ধ করে দিয়ে না। রান্না করার সময় চুলার হিট বা আগুন কমিয়ে নিন, বিশেষ করে তরকারি বা অন্য কোনকিছু হাত দিয়ে নাড়াচাড়া করার সময়।

৫. হাত বেশি শুষ্ক থাকলে চুলকাতে পারে। এসময় শক্ত কোন কিছুর সাথে ঘষা হতে বিরত থাকুন। এর করে আপনার হাতে দাগ পরে যেতে পারে।

হাতের সৌন্দর্য বৃদ্ধির কমন কিছু টিপস

আপনার স্কিন শুষ্ক কিংবা তেলতেলে যেমনই হোক না কেন আপনার এই টিপসগুলো মেনে চলা উচিত। বিশেষ করে বাহিরে বের হওয়ার সময় এই সকল বিষয়ে খেয়াল রাখা জরুরি।

১. বাহিরে বের হলে সূর্যের অতি বেগুনীরশ্মি থেকে আপনার হাত বাঁচাতে সান্সক্রিন পরুন।

২. বাগান করা আমাদের অনেকেরই পছন্দের। আর বাগানে কাজ করার সময় আমাদের হাত দিয়ে অনেক কিছু ধরতে হয়। তাই বাগানে কাজ করার সময় অবশ্যই হ্যান্ড গ্লাবস পরুন। এটি আপনার হাতকে দাগ পড়া থেকে বাঁচাবে।

৩. হাতে মাঝে মাঝে মিস্তুরাইজিং ক্রিম ব্যবহার করুন।

৪. হাতের সৌন্দর্য অনেকটা নির্ভর করে আপনার নখের উপর। এমনকি আপনি কতোটা পরিষ্কার পরিছন্ন তাও। তাই নিয়মিত নখ কাটুন ও পরিষ্কার করুন।

৫. রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে লোশন বা অলিভ ওয়েল ব্যবহার কড়া যেতে পারে।

হাতে রিং পরুন

আপনি কি কখনো খেয়াল করেছেন হাতের আংটি কতোটা হাতের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। বিশেষ করে নতুন বিয়ে হলে আংটি পরার ট্রেন্ড চালু আছে আমাদের দেশে। অনেকেই শখের বসে আংটি পরে থাকে। যাহোক, বাজারে বিশেষ করে জুয়েলারি দোকানে হাজারো বাহারি ডিজাইনের আংটি পাওয়া যায়।

আপনাকে যে হীরা বা স্বর্ণের আংটি পরতে হবে তা কিন্তু নয়। বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন দামের আংটি পাওয়া যায়। আপনার সাধ্যের মধ্যে আপনার পছন্দসই একটি আংটি কিনেত নিতে পারে।

হাত ঘড়ি পড়ুন

হাতঘড়ি এর সাথে আমরা সবাই পরিচিত। শুধু যে সময় দেখার জন্য হাতঘড়ি পরা হয় তা কিন্তু নয়। একটি পারফেক্ট হাতঘড়ি আপনার হাত তথা আপনার সম্পূর্ণ লুক বদলে দিতে পারে। বাজারে বিভিন্ন দামের ও ডিজাইনের হাতঘড়ি পাওয়া যায়। আপনি আপনার হাতের সাথে মানানসই একটি হাতঘড়ি কিনে পরতে পারেন।

প্রিয় ভিজিটর, হাত ঘড়ি কিংবা রিং আপনার হাতের স্কিনের কোণ পরিবর্তন না আনলেও আপনার স্মার্টনেস কিংবা লুক বদলে দিতে সক্ষম।

বাংলা ভাষায় হেলথ, বিউটি টিপস-ট্রিক্স পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আপনাদের প্রিয়, টিপসওয়ালি ডট কম। ধন্যবাদ।

Spread the love

Leave a Reply