https://tipswali.com/wp-content/uploads/2020/08/ছেলেদের-রূপচর্চার-টিপস.jpg
Spread the love

ছেলেদের রূপচর্চা এখন মহিলাদের সাজসজ্জার নিয়মের সাথে প্রায় সমান। আর নিজের সৌন্দর্য আরও বাড়ুক ছেলে হোক আর মেয়ে কে ই বা না চায়। স্বভাবগতভাবে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা রূপচর্চা নিয়ে বেশি চিন্তিত থাকে। যাহোক আপনি যদি একজন পুরুষ হয়ে থাকেন কিংবা একজন মেয়ে যে কিনা আপনার পছন্দের মানুষের রূপচর্চার টিপস খুঁজছেন তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন।

প্রিয় পাঠক, আজেকের লেখায় শেয়ার করতে যাচ্ছি পুরুষ বা ছেলেদের রূপচর্চার অত্যন্ত চমৎকার ও সিম্পল ১০ টি টিপস। আর এই টিপস গুলোর জন্য আপনাকে কোন বাড়তি টাকা খরচা করতে হবে না অথবা কোন দামি ক্রিম কেনার প্রয়োজন নেই। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

আপনার ত্বককে ময়শ্চারাইজ করুন

আপনি আপানার দেশের বৃদ্ধি তথা অভ্যান্তরিন সকল অঙ্গ যাতে ঠিক থাকে সে জন্য নিয়মিত খাওয়া-দাওয়া করছেন, ব্যাম করছেন। তবে কি আপনি আপনার শরীরের সব থেকে বৃহত্তম অঙ্গের যত্ন নিচ্ছেন? হ্যাঁ, বলছি স্ক্রিনের কথা। এক জন পূর্ণ বয়স্ক পুরুষের শরীরে প্রায় ৮ পাউন্ড ওজন পরিমান চামড়া থাকে। তাই আপনার উচিত এটাকেও সঠিক ভাবে পরিচর্যা করা।

স্কিন স্বাস্থ্যবান রাখার সব থেকে সেরা উপায় হচ্ছে ময়শ্চারাইজ। প্রচুর পরিমান পানি পান করুন। আর আপনার স্কিন যদি শুঁকনো বা খসখসে মনে হয় তাহলে গোসলের পড়ে বডি লোশন ব্যবহার করুন। বডি লোসন আপনার শরীর ও ফেস ময়শ্চারাইজে বেশ কার্যকরী।

শেভ হওয়ার সময় ত্বক বাঁচান

আপনি কি প্রতদিন অফিসে যাওয়ার আগে বা বাহিরে বের হলেই শেভ করে বের হন? একটু থামুন। প্রতিদিন বা অতিরিক্ত শেভ হওয়া জ্বালাপোড়া বা চুলকানি হওয়ার অন্যতম কারন হতে পারে। আবারো বলছি পুরুষদের ফেসের স্কিন বেশ সংবেদনশীল। পাড়লে একবার শেভ হওয়ার পর কিছুদিন বিরতি দিন।

আর শেভ করার জন্য অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট আছে এমন শেভিং ক্রিম ব্যবহার করুন। অনেকে শেভ হওয়ার পর মুখ লালছে হয়ে যায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এটি থেকে রক্ষা করে। তবে দাড়ি রাখতে পাড়লে সব থেকে ভালো। এতে করে আপনার ফেস আরও সফট ও দাগ মুক্ত থাকবে। পাশাপাশি আপনার দাড়ির গোড়া গুলো নরম থাকবে ফলে আপনাকে অস্বস্তিতে ভোগতে হবে না। আপনি চাইলে ট্রিমার ব্যবহার করতে পারেন।

ট্রিমার কেনার ও ব্যবহারের কিছু টিপস

নিয়মিত ফেস পরিষ্কার করুন

কেবল মাত্র মেয়েদের ফেসই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা বাধ্যতামুলক না। মেয়েদের তুলনার ছেলেদের বেশি বাহিরে থাকা হয়। আর বাহিরের বাতাসে থাকা ধুলোবালি, ময়লা এবং আপনার শরীরের ঘাম ফেসের ত্বকের ছিদ্রগুলো আটকে দিতে পারে। যা কিনা পরবর্তীতে আপনার ত্বকে মেস্তা কিংবা ব্রনের অন্যতম কারন হতে পারে।

নিয়মিত ফেস পরিষ্কার করলে আপানর ফেসের তেলতেলে ভাব দূর হবে। আপানর ফেস স্কিনে যদি অতিরিক্ত তেলতেলে ভাব থাকে তাহলে আপনি মেন ফেসওয়াস ব্যবহার করতে পারেন। অবশ্যই ব্র্যান্ডের ক্রিম বা ফেসওয়াস ব্যবহার করুন। অথবা স্কিন বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী কোন ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

ছেলেদের শ্যাম্পু ব্যবহার করুন

বাহিরে থাকার ফলে চুলে ধুলো ময়ালা জমে যায়। নিয়মিত শ্যাম্পু আপনার চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধির পাশাপাশি চুলের গোঁড়া শক্ত করে তুলে। তবে প্রতিদিন শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিত নয়। বিসেসজ্ঞদের মতে সপ্তাহে ২ দিন শ্যাম্পু করা উত্তম।

ছেলেদের মাথায় মেয়েদের তুলনায় বেশি তেল বেড় হয়। তার ড্রায়ার ব্যবহারের চেয়ে নিয়মিত শ্যাম্পু করা উত্তম। ছেলে ও মেয়েদের শ্যাম্পু ও এর গুনাগুন আলাদা। বাজারে ছেলে ও মেয়েদের জন্য আলাদা আলাদা শ্যাম্পু পাওয়া যায়। এবং এরদের উপাদানগুলোও আলাদা আলাদা।

চুলে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন

শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার ব্যবহার করলে আপানর চুল আর সিল্কি হয়। তবে আপনাকে অবশ্যই নিয়মমেনে কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। শ্যাম্পু করার পর চুল ভালো ভাবে ধুয়ে নিন। চুলে সামান্য পরিমান শ্যাম্পুও যেন অবশিষ্ট না থাকে।

অনেকেই মনে করে শ্যাম্পুর থেকেও বেশি কন্ডিশনার ব্যবহার করা উচিত। এটি ভুল ধারনা। একটি মুদ্রার পরিমান কন্ডিশনার হাতের তালুতে নিয়ে হাতের আঙুলের মাখুন। মনে রাখবেন কন্ডিশনার শুধু মাত্র চুলে ব্যবহার করার জন্য। তাই হাতের কন্ডিশনার নিয়ে চুলের আগা থেকে গোঁড়া পর্যন্ত কন্ডিশনার মাখুন।

চুলে কন্ডিশনার মেখে কিছু সময় অপেক্ষা করুন। এর পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মাথা ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

রূপচর্চার পাশাপাশি আপনার কাপড়েরও যত্ন নিন

কথায় আছে পোশাকই সৌন্দর্য। তাই বলে আপনাকে যে দামি দামি পোশাক পড়তে হবে তা কিন্তু নয়। বেশি কালারফুল পোশাক পছন্দ করা ও পড়া হতে বিরত থাকুন। ( তবে এটা আপনার একান্ত ব্যাক্তিগত ব্যাপার)

কোথাও গেলে আপনি ক্যাজুয়াল না ফরমাল পোশাক পড়লেন তা কোন বিষয়ই না। তবে এটা নিশ্চিত করুন যে। আপনার পোশাকগুলো  পরিষ্কার ও আয়রন বা স্ত্রি করা। পোশাকের নিয়মিত যত্ন নিন। পোশাকে যেন কোন প্রকার দাগ না থাকে সেদিকে খেয়াল করুন।

আরো কিছু বিষয় যেমন, পাঞ্জাবীর সাথে কেডস পরিহার করুন, আপনি চটি বা স্লিপার বা বেল্ট ওয়ালা জুতা পড়তে পারেন। কোট পরলে লোফার কিংবা সু পরুন। এভাবে ড্রেসের মধ্যে সামঞ্জস্য রাখুন।

হেসে হেসে কথা বলুন

মাদার তেরেসার বিখ্যাত উক্তি- একে অপরের সাথে হাসিমুখে মিলিত হন কারন প্রেমের শুরুটা হাসি দিয়েই শুরু হয়।

রাসুল (সঃ) বলেন- তোমার ভাইয়ের (অন্যের) মুখে (সাক্ষাতে) মুচকি হাসি নিয়ে আসাও একটি সাদকা।

মানুষ যখন একে অপরের দিকে সবার আগে চোখ-মুখের দিকে নজর যায়। আর আপনার মুখে হাসি থাকলে আপনার চোখেও হাসির একটি ছাপ পড়ে। নিয়মিত দাঁত পরিষ্কার করুন। নিয়মিত ফেস ওয়াস, দাঁত মাজা, নখ পরিষ্কার করলে আপনার ভিতর থেকেও একটা ভালো লাগা কাজ করবে।

দাঁত ব্রাশ করার রুটিন অনুসরন করুন

কফি, চা, ধুমপান কিংবা কোন খাবার খাওয়ার পর তা থেকে আপনার দাঁত দাগী হবেই। আপনার দাঁত নিয়মিত পরিষ্কার না করলে লালচে রঙ ধারন করবে। আর বোনাস হিসেবে তো বাজে গন্ধ থাকছেই। আর এমনটা হলে কেউ আপনার সামনা সামনি দাড়িয়ে কথাই বলতে চাইবে না।

দাঁত পরিষ্কার করার জন্য দামি কোন ক্রিমের প্রয়োজন নেই। কেবল মাত্র সামান্য টুথপেস্ট দিয়েই দাঁত পরিষ্কার করা যায়। আপনার মুখে বেশি ঘ্রাণ থাকলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন।

আপনার লিপস সফট রাখুন

পুরুষদের জন্য ছোট একটি টিপস- দাতের পাশাপাশি আপনার ঠোঁট আপনার হাসির মাধুর্য বাড়িয়ে দেয়। আপানর ঠোঁট যদি শুঁকিয়ে যায় বা চামড়া ওঠার সমস্যা থাকে তাহলে লিপ্স বাম্প ব্যবহার করুন। অবশ্যই সামান্য পরিমান ব্যবহার করুন।

বাজারে বিভিন্ন লিপ্স বাম্প পাওয়া যায়। কোথাও গেলে পকেটে নিয়ে যেতে পারেন। আকারে ছোট হওয়ায় বহনে কোন ঝামেলা নেই।

রূপচর্চার পাশাপাশি নিয়মিত ঘুমান

চোখের নিচে দাগ পড়ে গেছে? তার মানে আপনার পর্যাপ্ত বিশ্রাম হচ্ছে না। বিশেষজ্ঞদের মতে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের দৈনিক ৭ থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুমানো উচিত।

তবে আপনার চোখের নিচে যদি বেশি দাগ পড়ে যায় তা শুধুমাত্র ঘুমালে যাবে না। পর্যাপ্ত ঘুমানোর পাশাপাশি নিয়মিত চোখের নিচে দাগ হওয়া জাগায় ঠাণ্ডা বরফ দিয়ে ঘষতে পারেন। অথবা পাতলা করে আলু কেটে কয়েকদিন ২০ মিনিট করে রেখে চিত হয়ে বা চেয়ারে হেলান দিয়ে শুয়ে থাকুন। এতে করে অল্পদিনের মধ্যেই দাগ দূর হয়ে যাবে। পাশাপাশি পর্যাপ্ত পানি পান করুন।

প্রিয় পাঠক, ছেলেদের রূপচর্চার টিপস নিয়ে এই ছিল আজকের আয়োজন। পুরুষের রূপচর্চার টিপস কোন টিপস আপনার জানা থাকলে শেয়ার করতে পারেন আমাদের সাথে। আপনার জানা টিপসগুলো আমাদের সাথে শেয়ার করতে চাইলে এখানে ক্লিক করে পাঠিয়ে দিন আমাদের কাছে।

8 Comments


  1. Keep on writing, great job!

  2. Very quickly this web page will be famous amid all blog visitors, due to
    it’s pleasant posts

    Feel free to surf to my web page :: qq onlin





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *